AndroidFeatured
Trending

ট্রোলিং রুখতে কড়া পদক্ষেপ Instagram-এর, আসছে একগুচ্ছ নয়া ফিচার

সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলিতে মানুষের সময় কাটানোর প্রবণতা যতই বেড়েছে, ততই পাল্লা দিয়ে বেড়েছে এই ধরণের মাধ্যমগুলির অপব্যবহার। নেটমাধ্যম থেকে আমরা পরিচিত হয়েছি ‘ট্রোল’, ‘মিম’ ইত্যাদি বিষয়ের সাথেও, যাতে মাত্র কয়েকটা ক্লিকেই এখন বয়ে যায় বিদ্রুপের বন্যা আর কেউ না কেউ বনে যান নেটিজেনদের হাসির খোরাক! বেশির ভাগ সময়েই পাবলিক ফিগার, প্রভাবশালী বা পাবলিক অ্যাকাউন্টের ইউজারদের এহেন আপত্তিকর ঘটনার সম্মুখীন হতে হয়।

সেক্ষেত্রে এই জাতীয় হেনস্থা এড়াতে এবার মাঠে নামল জনপ্রিয় সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট Instagram (ইনস্টাগ্রাম)। Facebook (ফেসবুক)-এর মালিকানাধীন ফটো-ভিডিও শেয়ারিং মাধ্যমটি সম্প্রতি ‘ট্রোলিং’ এড়াতে একটি নতুন ফিচার চালু করেছে। এই ফিচারের মাধ্যমে ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীদের অর্থহীন আচরণ সীমাবদ্ধ করার ক্ষেত্রে আরও বেশি নিয়ন্ত্রণ মিলবে এবং অবমাননাকর মন্তব্য পোস্টকারীদের বিরত করা যাবে।

Instagram-এ স্বচ্ছতা আনতে আসল একগুচ্ছ ফিচার

এর আগেও নেতিবাচক কমেন্ট এড়াতে কিছু অপশন প্রবর্তন করেছিল ইনস্টাগ্রাম; কিন্তু তাতেও এক দুর্বৃত্ত শ্রেণীর ইউজারদের ঠেকানো সম্ভব হয়নি। এমনিতে সংস্থাটি বিদ্বেষমূলক বা হুমকিমূলক বক্তব্য সম্পর্কে অবগত হলে তা রিমুভ করে দেয়।

কিন্তু এখন তারা কমেন্ট সেকশনের অপব্যবহারের আটকাতে আরো সচেষ্ট হয়েছে। এক্ষেত্রে ইনস্টাগ্রাম, ‘লিমিটস’ (Limits) নামে একটি নতুন ফিচার চালু করেছে, যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে কমেন্ট এবং DM (ডিরেক্ট মেসেজ) রিকুয়েস্টগুলিকে হাইড করে দেবে। তবে এতে যারা ইনস্টাগ্রামে আপনাকে ফলো করেনা, অথবা যারা সম্প্রতি আপনাকে অনুসরণ করছে – কেবল তাদের ক্ষেত্রেই অপশনটি কার্যকরী হবে। আবার ফিচারটি অপ্ট-ইন বিকল্প হিসেবে কাজ করবে, ফলত ইউজাররা এটিকে প্রয়োজন মত ব্যবহার করতে পারবেন।

ইনস্টাগ্রাম, আজ থেকেই বিশ্বব্যাপী ইউজারদের জন্য এই সীমাবদ্ধতা চালু করেছে। প্রাইভেসি সেটিংসে এখন ‘লিমিটস’ নামে অপশনটি উপলব্ধ হবে। কোনো ইউজার যখন খুশি সেটিং সেকশনে গিয়ে এটি চালু বা বন্ধ করতে পারবেন।

নতুন ফিচার সম্পর্কে বলতে গিয়ে, ইনস্টাগ্রামের প্রধান অ্যাডাম মোসেরি জানিয়েছেন যে, তাঁরা এমনিতে প্রচুর ইউজারের নেতিবাচক মনোভাব লক্ষ্য করেন, যেখানে দেখা যায় কোনো সেলিব্রিটি ইউজারের ফলোয়ার নন বা তাঁকে সম্প্রতি অনুসরণ করতে শুরু করেছে এমন ইউজাররা বেশি নেগেটিভিটি ছড়াচ্ছে।

সাম্প্রতিক ইউরো ২০২০ ফাইনালের পরে এই অস্বস্তি বৃদ্ধি পেয়েছে বলে সংস্থাটির মত। সেক্ষেত্রে কোনো ইউজার, একটি পোস্টে অবমাননাকর মন্তব্য পোস্ট করতে গেলে ইনস্টাগ্রাম কমেন্ট ডিলিট করার সতর্কতা দেখাবে। ইউজাররা সেই ওয়ার্নিং না মানলে তাদের আপত্তিকর মন্তব্য রিমুভ করে ইনস্টাগ্রাম। আবার, ৫০% সময়ে এই ইউজাররা নিজেই কমেন্ট এডিট বা ডিলিট করে দেয় বলে জানা গিয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *