CareerFeatured
Trending

৫ লাখ চাকরিপ্রত্যাশীকে প্রশিক্ষণ দেবে সরকার, রেজিস্ট্রেশন আগস্টের শেষে

আগামী পাঁচ বছরে দেশের পাঁচ লাখ চাকরিপ্রত্যাশী ও পেশাজীবীর কর্মদক্ষতা বৃদ্ধিতে সফট স্কিল প্রশিক্ষণ দেবে সরকার। প্রশিক্ষণের জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। www.bdskills.gov.bd এই প্লাটফর্মে প্রশিক্ষণের রেজিস্ট্রেশন শুরু হবে এ মাসের শেষ সপ্তাহে। প্রশিক্ষণ শুরু হবে আগামী সেপ্টেম্বর থেকে।

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) ও যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অলাভজনক প্রতিষ্ঠান ওয়াদানী অপারেটিং ফাউন্ডেশনের (ডব্লিউওএফ) মধ্যে এ–সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। বিসিসির প্রশিক্ষণ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে ২০২৬ সালের মধ্যে ৫ লাখ চাকরিপ্রত্যাশী ও পেশাজীবীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। বিসিসির লিভারেজিং আইসিটি প্রকল্প পরিচালক ও ডেটা সেন্টারের সিএ অপারেটিং এবং সিকিউরিটি পরিচালক তারেক এম বরকতউল্লাহ এবং ডব্লিউওএফের নির্বাহী পরিচালক অজয় কেলা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন।

সমঝোতা স্মারক ও প্রশিক্ষণের বিষয়ে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ বলেন, সরকার একটি বৈশ্বিক খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায় আগামী সেপ্টেম্বর থেকে পরবর্তী পাঁচ বছরে চাকরিপ্রত্যাশী ও পেশাজীবীদের গুণগত মানের সফট স্কিল প্রশিক্ষণ দিবে যেন দক্ষতা, আত্মবিশ্বাস ও সৃজনশীলতা বৃদ্ধি পায়।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রযুক্তির মাধ্যমে রূপান্তরের ফলে আগামী এক দশকে দেশে ও বিশ্ববাজারে বিপুলসংখ্যক কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। দেশে ও বিদেশের বিভিন্ন কোম্পানি ডেটা ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, অর্থনীতি, ইঞ্জিনিয়ারিং, ক্লাউড কম্পিউটিং এবং পণ্য উন্নয়নের ক্ষেত্রে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করছে। এর কারণে সফট স্কিলে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মানুষের চাহিদা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাবে।

তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম বলেন, প্রতিবছর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ থেকে প্রায় সাড়ে তিন লাখ শিক্ষার্থী স্নাতক ডিগ্রি নিয়ে বের হন। তাঁদের মধ্যে অনেকের সফট স্কিলে পর্যাপ্ত জ্ঞান নেই। এ জন্য বিপুলসংখ্যক চাকরিপ্রত্যাশী ও পেশাজীবীর সফট স্কিলে ঘাটতি পূরণে প্রশিক্ষণ শুরু হচ্ছে। হার্ড স্কিলের মতোই সফট স্কিলে জ্ঞান প্রায় সব পেশার মানুষের জন্যই প্রয়োজন।

এলআইসিটি প্রকল্পের পলিসি অ্যাডভাইজার সামি আহমেদ পুরো প্রশিক্ষণের সমন্বয় ও গুণগত মানের দেখভাল করবেন। তিনি বলেন, ‘প্রশিক্ষণের গুণগত মান মনিটরিং করার জন্য একটা টিম থাকবে। প্রশিক্ষণ পেয়ে যাঁরা চাকরিতে যোগ দেবেন, তাঁদের ট্র্যাক করা হবে। ।’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *